অগ্নিদগ্ধ হয়ে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু


প্রকাশের সময় : মার্চ ৮, ২০২১, ৪:২৩ অপরাহ্ন / ২১৬
অগ্নিদগ্ধ হয়ে বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

সিফাত রাকা

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি (বিএমবি) বিভাগের ১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ত্রয়ী দাস অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

আজ ৮ মার্চ (সোমবার) সকাল ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) বাসায় সন্ধ্যা পূজা দিতে গিয়ে তাঁর শাড়ির আঁচলে আগুন লেগে যায়। পরবর্তীতে এ আগুন তাঁর সমস্ত শরীরে ছড়িয়ে পড়ে এবং শরীরের ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়।

পরে তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয় এবং অবস্থা সংকটাপন্ন হলে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ৪ দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মৃত্যুবরণ করেন ত্রয়ী।

তাঁর মৃত্যুতে বিশ্ববিদ্যালয়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে, ভেঙ্গে পড়েছেন তার সহপাঠীরা। ত্রয়ীর সহপাঠী জাকির হোসাইন বলেন, “দীর্ঘদিন ধরে ক্যাম্পাস বন্ধ, এমনিতেই আমাদের সহপাঠীদের সাথে দেখা সাক্ষাৎ নেই। তার মধ্যে এরকম একটা খবর আমাদের খুবই মর্মাহত করেছে। আমাদের পুরো বিএমবি বিভাগ আজ শোকাহত। ত্রয়ীর পরিবার যেন এ শোক কাটিয়ে উঠতে পারে সবাই তার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন। এরকম মৃত্যু কারো হোক কাম্য না। সৃষ্টিকর্তা সবাইকে সুস্থ সুন্দর জীবন দিক এটাই কামনা।”

উল্লেখ্য যে, ত্রয়ীর মৃতদেহ সৎকারের জন্য কুমিল্লায় তাঁর শশুর বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে এবং সেখানে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হবে। ব্যক্তিগত জীবনে ত্রয়ীর একটি এক বছরের পুত্র সন্তান রয়েছে এবং তার স্বামী ইস্টার্ন ব্যাংকের কর্মরত রয়েছেন।