কাঁচা মরিচের কেজি ৩৫০ টাকা


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১১, ২০২২, ৯:৪৪ পূর্বাহ্ন / ৫২
কাঁচা মরিচের কেজি ৩৫০ টাকা

লাগামহীন হয়ে পড়েছে কাঁচামরিচের দাম। প্রতিদিনই বাড়ছে। দামের কথা শুনে খুচরা বাজারের ক্রেতাদের চোখ কপালে। যাদের খুব বেশি প্রয়োজন তারা কিনছেন, কিন্তু পরিমাণে একেবারেই অল্প। যাদের প্রয়োজন কম, তারা খালি হাতেই ফিরে যাচ্ছেন।

রাজধানীর বেশ কয়েকটি খুচরা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বুধবার ভাল মানের এক কেজি কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ৩০০-৩২০ টাকা। কালো ধরনের (একটু নিম্নমানের) কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকা কেজিতে। এক দিন আগেও এই মানের কাঁচামরিচ বিক্রি হয়েছে ২০০ টাকায়।

কাঁচামরিচের পাইকারি দাম জানতে কাওরান বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, বাজারে ভাল মানের কাঁচামরিচের পাল্লা বিক্রি হচ্ছে ১২০০ টাকায়। এই মরিচ গত মঙ্গলবারে বিক্রি হয়েছিল ৯৪০ টাকায়। অর্থাৎ এক দিনের ব্যবধানে পাল্লাপ্রতি দাম বেড়েছে ২৬০ টাকা।

অন্যদিকে কালো জাতের কাঁচামরিচ পাইকারি বিক্রি হচ্ছে ১১০০ টাকা পাল্লা। এই মরিচ আগের দিন বিক্রি হয়েছিল ৮৮০ টাকা পাল্লায়। অর্থাৎ পাইকারি বাজারে পাল্লাপ্রতি দাম বেড়েছে ২২০ টাকা। দাম বৃদ্ধির বিষয়ে আড়তদাররা বলছেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় পরিবহন খরচ বেড়েছে। একই সঙ্গে মহরমের ছুটির কারণে মরিচ আমদানি কমেছে। এই কারণে দাম আরেক দফা বেড়েছে।

পূর্ব বাড্ডা পাঁচতলা বাজার থেকে ২৫০ গ্রাম কাঁচামরিচ কিনেছেন আজিজুল ইসলাম। দাম নিয়েছে ৮০ টাকা। তিনি বলেন, দুদিন আগে মরিচ কিনতে এসেছিলাম। দাম বেশি শুনে ওইদিন চলে যাই। আজ স্ত্রীর কথায় আবার মরিচ কিনতে আসলাম। দোকানদার বলল, কেজি ৩৫০ টাকা। উপায় না পেয়ে এক পোয়া কিনেছি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, জীবনে মরিচের এত দাম দেখিনি। এত দামে মরিচও কিনিনি।

দোকানদার মনির হোসেন বলেন, ৯২০ টাকার মরিচ পাইকারি বাজার থেকে আজ (বুধবার) ১২৫০ টাকায় কিনেছি। যাতায়াত ভাড়াসহ ১৩০০ টাকা পড়েছে। তাই এক পোয়া মরিচ বিক্রি করছি ৮০ টাকায়। গতকাল এই মরিচ ৬০ টাকা বিক্রি করেছিলাম।

দাম বাড়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আড়তদাররা বলল ভারত থেকে গতকাল মাল আসেনি। বাজারে মরিচ কম। সরবরাহ কম থাকায় তাই দাম বেড়েছে।

রান্না ঘর বিভাগের আরো খবর

আরও খবর