গাঁজা কি আসলেই মানুষের সৃজনশীলতা বাড়ায়?


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২৯, ২০২২, ৮:৩২ অপরাহ্ন / ৩১
গাঁজা কি আসলেই মানুষের সৃজনশীলতা বাড়ায়?

‘গাজা এবং হাশিশের প্রভাব বর্ণনা করার সেরা উপায় হলো, এটি আমাকে স্বস্তি দেয় এবং সৃজনশীল করে তুলে।’ – স্টিভ জবস, অ্যাপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা।

‘আমি যখন গান লিখি, তখন প্রচুর গাজা সেবন করি।’- লেডি গাগা, মার্কিন গায়িকা।

গাঁজা সৃজনশীলতা বাড়ায় এমন ধারণা পপ সংস্কৃতিতে ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও গাঁজার বিনোদনমূলক ব্যবহার কেবল যুক্তরাষ্ট্রসহ গুটিকয়েক দেশে বৈধ। তবে বিশ্বের অনেক শিল্পী, শিল্পপতি, তারকারা ইদানিং গাঁজা সেবনের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করছেন। কারণ তাদের মতে, গাঁজা তাদের সৃজনশীলতার বিকাশে ভূমিকা রাখে। আর এমন ধারণা থেকে গাজা সেবনের বিষয়টি ক্রমশ সাধারণ হয়ে উঠছে। 

কিন্তু গাঁজা কি আসলেই মানুষের সৃজনশীলতা বাড়ায়? নাকি গাঁজা খেলে মানুষের ধারণা হয় যে তারা সৃষ্টিশীল হয়ে উঠছেন? 

কর্মক্ষেত্রের আচরণ এবং কর্মদক্ষতার ওপর নজর দিয়ে অসংখ্য গবেষণা করেছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে গাঁজার প্রভাব সম্পর্কিত গবেষণা খুব বেশি নেই। তাই গাঁজার ব্যবহারে কোনো সংস্থা এবং কর্মচারী কিরূপ প্রভাবিত হতে পারে, তা জানতে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন রাজ্যে ৩০০ জনের বেশি গাঁজা সেবনকারীর ওপর গবেষণা চালায় হাভার্ড বিজনেস রিভিউ (এইচবিআর)। 

গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের সপ্তাহে একাধিকবার গাজা সেবনের অভ্যাস রয়েছে। অর্থাৎ ‘হালকা’ গাজা সেবনকারী। তাদের ওপর দুটি গবেষণা পরিচালনা করেন গবেষকরা। গাঁজার প্রভাব থাকা অবস্থায় তাদেরকে বিভিন্ন সৃজনশীল কাজ করতে দেন গবেষকরা।

সৃজশীলতার যাচাইয়ের জন্য অংশগ্রহণকারীদের একটি গ্রুপকে একটি ইট দিয়ে সে ইটের যতগুলো সম্ভব সৃজনশীল ব্যবহারের তালিকা তৈরি করতে বলা হয়। সৃজনশীলতা পরীক্ষার ক্ষেত্রে এটি একটি বহুল প্রচলিত পদ্ধতি। আরেকটি গ্রুপকে অফিসিয়াল কাজ সম্পর্কিত সৃজনশীল কাজ করতে দেওয়া হয়। অংশগ্রহণকারীদের ভেবে নিতে বলা হয় যে, তারা একটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা। সুতরাং প্রতিষ্ঠানের আয় বাড়ানোর জন্য সবধরনের সৃজনশীল উপায়ের কথা তাদের ভাবতে বলা হয়।

গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, গাঁজা সেবনকারীরা গবেষণাকালে সুখী, প্রফুল্ল এবং সহজ কথায় ভালো মেজাজে কাজ করেছিল। ফলে গাঁজা সেবন না করা অংশগ্রহণকারীদের তুলনায় তারা নিজেদের ধারণাকে বেশি সৃষ্টিশীল হিসেবে মূল্যায়ন করেছেন। তবে বিচারকরা গাঁজা সেবনকারী ও গাঁজা সেবন না করা- দুই পক্ষের সৃজনশীলতার মধ্যে কোনো পার্থক্য খুঁজে পাননি। 

যার মানে, মানুষের প্রকৃত সৃজনশীলতার ওপর গাজার কোনো প্রভাব কিংবা ভূমিকা নেই। তবে এটি আনন্দের অনুভূতি বাড়িয়ে দেয়। ফলে গাঁজা সেবনকারীরা অন্যদের চেয়ে নিজেদের বেশি সৃজনশীল ভেবে থাকেন।

মানুষের সৃজনশীলতার ওপর গাজার প্রভাব বুঝতে আরো গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করছেন গবেষকরা।

তথ্যসূত্র: এইচআরবি ডটঅর্গ