বশেমুরবিপ্রবি’র কর্মকর্তা সমিতির নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন, কাল ভোট গ্রহণ


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১০, ২০২১, ৮:৩০ অপরাহ্ন / ৩৪৩
বশেমুরবিপ্রবি’র কর্মকর্তা সমিতির নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন, কাল ভোট গ্রহণ

ক্যাম্পাস ডেস্কঃ

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কর্মকর্তা সমিতির দ্বি—বার্ষিক (২০২১—২০২২) নির্বাচনের যাবতীয় প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অবাধ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচন উপহার দিতে বশেমুরবিপ্রবি কর্মকর্তা সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটি বদ্ধপরিকর।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রতিটি পরিষদের ২ জন করে এজেন্ট বুথে নিয়োজিত রাখার সিদ্ধান্তে এবং নির্বাচনের পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে আনসার সদস্য সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সদস্যদেরকে মোতায়েন করা হবে বলে জানান বশেমুরবিপ্রবি কর্মকর্তা সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান নির্বাচন কমিশনার প্রকৌশলী এস এম এস্কান্দার আলী। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় বশেমুরবিপ্রবি কর্মকর্তা সমিতির কার্যালয়ে স্বল্প পরিসরে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিরতিহীনভাবে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করার লক্ষ্যে বশেমুরবিপ্রবি’র উপ—রেজিষ্টার খান মোহাম্মদ ও সেকশন কর্মকর্তা মোঃ মিলন হাসান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। মোট ভোটারের সংখ্যা ৮৩টি। নির্বাচনে ৫ টি কার্যনির্বাহী সদস্য পদ সহ মোট ৯টি পদে ১৫ জন করে তুহিন—মিরাজ পরিষদ এবং হিরা—ওয়ালিদ পরিষদ থেকে ৩০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলেও জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা ভোটারদের (কর্মকর্তাদের) কাছে গিয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম অর্জন ও কর্মকর্তাদের দাবী আদায়ে বিশ্বাসী তুহিন—মিরাজ পরিষদ থেকে নির্বাচন করছেন সভাপতি পদে তুহিন মাহমুদ, সহ—সভাপতি পদে বি এম আরিফুল ইসলাম ও শেখ মশিকুর রহমান (কলিন্স), সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ মিরাজ সিকদার, যুগ্ম—সাধারণ সম্পাদক পদে এস এম মাহাবুবুল হাসান (কামাল) ও সরাফত খান, অর্থ সম্পাদক পদে আতিয়ার রাসুল (হিমেল), প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে মোহাম্মদ আবুল কাশেম, দপ্তর সম্পাদক পদে মিতু হীরা, ক্রীড়া ও সাংষ্কৃতিক সম্পাদক পদে হাবিবুল্লাহ চৌধুরী, কার্যনির্বাহী সদস্য পদে মোঃ আশরাফুল ইসলাম, মশিউর রহমান, মাহাতাব উদ্দিন খান, তরিকুল ইসলাম এবং মোঃ আরিফুর হক (সাগর)।

অপরদিকে, জাতির পিতার আদর্শ, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং জাতির পিতার নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত কর্মকর্তাদের ন্যায় সংগত অধিকার প্রতিষ্ঠায় অতীতের ন্যায় দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধে বিশ্বাসী হিরা—ওয়ালিদ পরিষদ থেকে সভাপতি পদে নিবার্চন করছেন সদ্য সাবেক সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম (হিরা), সহ—সভাপতি পদে মাহবুবুর রহমান (সুমন) ও চৌধুরী মনিরুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক পদে সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওয়ালিদ মিয়া, যুগ্ম—সাধারণ সম্পদক পদে রবিউল ইসলাম (রবি) ও এস এম শফিকুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক পদে ফয়সাল আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক পদে মোঃ আতিকুর রহমান (মুরাদ), প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে মোঃ রাকিবুল ইসলাম, ক্রীড়া ও সাংষ্কৃতিক সম্পাদক মোহাম্মাদ মাহমুদুল হাসান (রানা), কার্যনির্বাহী সদস্য পদে আসলাম হোসেন, শুভ্রা রানী ভৌমিক, শরীফ শরিফুল (অরভী), মোঃ শাহেদ জামান সেতু এবং মাসুম হাওলাদার।

এ বিষয়ে ভোটাররা জানান, নির্বাচনী ইশতেহার নিয়ে উভয় পরিষদের প্রার্থীরা আমাদের নিকট একাধিকবার এসেছেন। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনে যারাই বিজয়ী হোক না কেন, তারা সকলকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে একটি শক্তিশালী অফিসার্স পরিষদ গঠন করে পরিষদের সার্বিক উন্নয়ন ও কল্যানে নিবেদিত হবেন এমনটাই প্রত্যাশা।