ভেতরে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ বাইরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, নির্বাচন কর্মকর্তার গাড়ী ভাংচুর


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৮, ২০২০, ৪:০৬ অপরাহ্ন / ১৬৫
ভেতরে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ বাইরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, নির্বাচন কর্মকর্তার গাড়ী ভাংচুর

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:
প্রথম বারের মতো পঞ্চগড় পৌরসভা নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটাররা তাদের ভোট দিচ্ছেন।তবে কেন্দ্রের ভেতরে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চললেও বাইরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটছে।জেলা শহরের কেন্দ্রগুলোর বাইরে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী জাকিয়া খাতুনের সমর্থক ও বিএনপি মেয়র প্রার্থী তৌহিদুল ইসলামের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজনে লাঠি লার্জ করছে পুলিশ ও বিজিবি। বিএনপির প্রার্থীর দাবি আওয়ামীলীগের প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা তাদের ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে বাঁধা দিচ্ছেন। এদিকে নুরুন আলা নুর কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে ও নতুন বস্তি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বেশ কয়েকজন আহত হয়ে হাসপাতালে গেছেন। তবে সকল বাধা উপেক্ষা করেও ভোটাররা ছুটছেন ভোট কেন্দ্রে। পিছিয়ে নেই নারীরাও। পর্যাপ্ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে প্রতিটি কেন্দ্রে। প্রতি কেন্দ্রে ৫ জন পুলিশ ও ১৫ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। দুই প্লাটুন বিজিবিও মাঠে রয়েছেন। নির্বাচনে পুলিশের ৩টি, র্যাবের ৩টি মোবাইল টিম কাজ করছেন। ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব দায়িত্ব পালন করছেন। ১৫ টি কেন্দ্রের ৯৭ টি বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ভোটার রয়েছেন ৩৫ হাজার ১১ জন।
এদিকে ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করতে গিয়ে বাধার মুখে পড়েন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা রির্টানিং কর্মকর্তা মো আলমগীর। পরে কালেক্টরেট আদর্শ বিদ্যা নিকেতন ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করে ফেরার পথে পেছন থেকে তার গাড়ী ভাংচুর করে একদল উশৃংখল যুবক। এসময় নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা রির্টানিং কর্মকর্তা মো আলমগীর হোসেন আহত না হলেও রবিউল ইসলাম নামে এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।