রংপুরে সবজির দাম তুলনামূলক কম থাকলেও দাম বেড়েছে চালের


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৮, ২০২০, ৩:৫৬ অপরাহ্ন / ১৭৬
রংপুরে সবজির দাম তুলনামূলক কম থাকলেও দাম বেড়েছে চালের

ডেস্কঃ
রংপুরের বিভিন্ন বাজারে চাল সরবরাহ থাকলেও দাম কমছে না চালের । লাগামহীন ভাবে এই চালের মূল্যবৃদ্ধি কমাতে বাজার মনিটরিংয়ের দাবি জানিয়েছে ভোক্তারা। গত সপ্তাহের মতো সবজিতে স্বস্তি থাকলেও এখনও চালের বাজার গরম। চালের বাড়তি মূল্যতে অনেকটাই দিশেহারা নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠী।

সবজির দাম বাজারে কম থাকলেও এখনও আলুর মূল্য কমেনি। কেজি প্রতি ৫০ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে আলু।
এদিকে চালের মূল্যবৃদ্ধি কে নিয়ে সিটি বাজারসহ বিভিন্ন চাল বাজারের খুচরা ব্যবসায়ীদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী জানা যায়, কয়েকদিন আগেও মিনিকেট চাল বিক্রি হয়েছিল প্রতি কেজি ৫২ টাকা, বর্তমানে কেজি প্রতি ২ টাকা বেড়ে দাড়িয়েছে ৫৪ টাকা। নাজিরশাইল চালের দামও বেড়ে ৫৬ থেকে ৫৮ টাকায় প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে।

চাল ব্যবসায়ীরা জানান, এক সপ্তাহ ধরে চালের দাম বেড়েছে অনেকটাই। মাহিগঞ্জ বাজারে মিনিকেট চাল (৫০ কেজি) গত সপ্তাহে ২৬০০ টাকা ছিল, বর্তমান তা বেড়ে দাড়িয়েছে ২৮০০ টাকা। বিআর ২৮ চাল (৫০ কেজি) গত সপ্তাহে ছিল ২৩৫০ টাকা, বর্তমান তা বেড়ে দাড়িয়েছে ২৬০০ টাকা। পাইজাম চাল (৫০ কেজি) গত সপ্তাহে ছিল ২২০০ টাকা, বর্তমান ২৩০০ টাকা। গুটি স্বর্ণা চাল ( ৫০ কেজি) গত সপ্তাহে ২০৬০ টাকা থাকলেও বর্তমান মূল্য ২১৫০ টাকা। এক সিদ্ধ চাল (৫০ কেজি) গত সপ্তাহে ছিল ২২৫০ টাকা, বর্তমান বাজার মূল্য ২৩৫০ টাকা।

এ বিষয়ে নগরবাসীরা জানান উত্তরোত্তর চালের দাম অনেক বেশি বেড়ে চলেছে। বাজারে গত সপ্তাহে চাল কেনা পড়েছে যে দামে বর্তমানে তারও থেকেও বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। এজন্য দরকার বাজার মনিটরিং।