শিক্ষকদের যথাযথ মূল্যায়ন করা হোক


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১১, ২০২০, ৫:৩০ অপরাহ্ন / ২৩৮
শিক্ষকদের যথাযথ মূল্যায়ন করা হোক

সজিবুর রহমান, বশেমুরবিপ্রবি থেকেঃ
শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। সেই মেরুদণ্ড গঠনের কারিগর শিক্ষক সমাজ। একটি মানুষের শিক্ষা অর্জনের ক্ষেত্রে পিতামাতার পরেই শিক্ষকের অবস্থান। জাতিগঠনের কারিগর হিসেবে তাদের অবদান অনস্বীকার্য। শিক্ষক হলেন আলোর দিশারি, জাতির পথপ্রদর্শক। গত ৫ই অক্টোবর পালিত হয়েছে বিশ্ব শিক্ষক দিবস। দিবসটিকে স্মরণ করে শিক্ষকদের সম্মানে লিখেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা।

রাজিব হোসেন।
বাংলা বিভাগ,তৃতীয় বর্ষ।
‘পিতা-মাতা পরে শিক্ষকের স্থান। শিক্ষক দিবস উপলক্ষ্যে আমার এটাই চাওয়া শিক্ষকদের কে যথাযথ মূল্যায়ন করা হোক এবং যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করা হোক। শিক্ষক জাতির ভবিষ্যৎ গড়ার কারিগর। সমাজের সম্মানিত ব্যক্তি হিসেবে বাঁচতে পারে সেই জায়গাটা তৈরি করে দেয়া উচিত আমাদের সমাজের নীতি নির্ধারকদের।’

মুশফিকুর হৃদয়।
বাংলা বিভাগ, প্রথম বর্ষ।
‘মানুষের ইন্দ্রিয় ৫ টি। ৬ষ্ঠটি হচ্ছে শিক্ষা এবং দীক্ষা। ৬ষ্ঠ ইন্দ্রিয় জাগ্রত হলে তবেই সে পরিপূর্ণ মানুষ। আর এ ইন্দ্রিয়টি জাগ্রত করানোর মহৎ দায়িত্ব যাদের উপর তারাই শিক্ষক। পুস্তকে ও মুরব্বীদের থেকে জেনেছি, শিক্ষকরা রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় ছাত্ররা তাদের পিছু নিতো, শিক্ষকের ২-৪ টা কথা শুনার জন্য, মৌমাছি যেমন মৌচাক কে ঘিরে রাখে তেমনি ছাত্ররা ঘিরে রাখতো শিক্ষকদের, জ্ঞান ক্ষুদা নিয়ে, জ্ঞান আহরণের জন্য। কিন্তু সমাজের এখন এমনই অধঃপতন যে শিক্ষকদের আজ অনেক সময়ই পুলিশি পাহারা নিয়ে চলতে হয়।’

আরাবিয়া স্নেহা।
বাংলা বিভাগ, প্রথম বর্ষ।
‘পৃথিবীর সব সন্তানের যেদিন মনুষ্যত্ব জাগ্রত হয়ে পরিপূর্ণ মানুষে পরিনত হবে সেদিন সব শিক্ষকদের মানসিক শ্রম সার্থক হবে। গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা তাদের প্রতি যারা মানুষের বিবেককে মনুষ্যত্বের অধিকারী করে গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।’

সানজানা সুলতানা।
বাংলা বিভাগ, প্রথম বর্ষ।
‘একজন সফল মানুষের পিছনে শিক্ষকের যে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা থাকে সেটা নতুন করে বলার কিছুই নেই। সে শিক্ষক যে পড়াশোনার ক্ষেত্রেই হতে হবে তেমন নয়। তিনি থাকতে পারেন জীবনের যে কোনো ক্ষেত্রেই। তিনি যে শুধুই পড়ুয়াকে শেখাবেন তা নয়। তিনি থেকে জীবনে চলার পথে পরামর্শ দেবেন, ব্যর্থদিনে পাশে দাড়িয়ে উৎসাহ দেবেন।সাফল্যের পথে নতুন লক্ষ্য স্থির করে দেবেন। তিনি জীবনে শুধু সফল নয় একজন ভাল মানুষ হতে শেখাবেন। প্রতিটি সফল মানুষের পিছনে রয়েছেন একজন আদর্শ শিক্ষক।’