১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ : এ মাসেই ফল


প্রকাশের সময় : মে ১৪, ২০২২, ১১:০২ অপরাহ্ন / ৭২
১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ : এ মাসেই ফল

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১৫ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগে বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তির ফল চলতি মাসেই প্রকাশ করা হবে বলে আশা করছেন বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ)। কর্মকর্তারা। এ বিষয়ে সৃষ্ট আইনি জটিলতা কাটানোর সার্বিক চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন তারা। ফল প্রকাশের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। চলতি মে মাসেই বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এসব শিক্ষক পদে আবেদন করা প্রার্থীদের নিয়োগের প্রাথমিক সুপারিশ করবে এনটিআরসিএ। শনিবার রাতে এনটিআরসিএর সচিব মো. ওবায়দুর রহমান দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করা ছয় মাসের আইসিটি সনদধারীরা নিয়োগ পেতে আদালতে মামলা করেন। তাই, নিয়োগ সুপারিশ নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছিল। মামলা নিয়ে জটিলতা কাটানোর চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএর সচিব মো. ওবায়দুর রহমান দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, চলতি মে মাসেই ১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তির প্রাথমিক ফল প্রকাশের চেষ্টা করছি। প্রার্থীদের প্রাথমিক সুপারিশ করার প্রস্তুতি নেয়া। দেখা যাক। 

জটিলতার বিষয়ে জানতে চাইলে সচিব আরও বলেন, আইসিটি শিক্ষকরা যে মামলা করেছিলেন সে মামলা চলছে। কিন্তু এ মামলার জটিলতা এড়িয়ে কিভাবে ফল দেয়া যায় সে বিষয়ে ভাবছি। আমরা আলোচনা করছি। 

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন,  বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তির ফল তৈরির পাশাপাশি তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্ততে যোগদান না করা পদে দ্বিতীয় ধাপের সুপারিশের প্রস্তুতিও নেয়া হচ্ছে। দ্বিতীয় ধাপের সুপারিশ ও বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তির ফল পাশাপাশি সময়ে প্রকাশ করা হবে। চলতি মাসেই সুখবর পাচ্ছেন প্রার্থীরা। আগামী ১৬ মে এনটিআরসিএর নির্বাহী কমিটির সভায় এ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হবে। 

বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৫ হাজার শিক্ষক পদে নিয়োগ আইনি জটিলতায় আটকে ছিল। এসব পদে নিয়োগের জন্য নিবন্ধিত প্রায় সাড়ে তিন লাখ প্রার্থী আবেদন করেছেন। গত মার্চ মাসেই এ গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশের পরিকল্পনা ছিল এনটিআরসিএর। কিন্তু আইনি জটিলতায় তা সম্ভব হয়নি।

বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তি অনুসারে ১৫ হাজার ১৬৩ শিক্ষক পদে আবেদন নেয়া হয়েছিলো। এ গণবিজ্ঞপ্তির ১৫ হাজারের বেশি পদে ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন নেয়া হয়। এরমধ্যে এমপিও পদ ছিলো ১২ হাজার ৮০৭টি ও ননএমপিও পদ ছিলো ২ হাজার ৩৫৬টি। এসব পদে ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৪০৭টি আবেদন পাওয়া গেছে বলে এনটিআরসিএকে জানিয়েছে টেলিটক।